Online classes problem: There is no Internet, online classes every day to travel 6 km

There is no Internet Connectivity, you have to travel 6 kilometers every day to take online classes



Online classes problem: Internet Connectivity-র সুবিধা নেই এলাকায় । বাধ্য হয়ে Online Class করতে প্রতিদিন 6 KMদূরে যেতে হচ্ছে Student দের। এমনই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন কেরলের ইডুকি রাজামালার Student-রা।

Covid Situation এ পড়াশোনায় বাদ সাধছে Lockdown। শারীরিক উপস্থিতির পরিবর্তে ভরসা Online Class।

দেশের বহু জায়গায় Internet Connectivity উন্নত না হওয়ায় ফল ভুগতে হচ্ছে Student দের।

আপাতত National Park of Eravikulam-র কাছে বসেই Class করছে Student-রা।


ইডুকির 12th Class-র Student অরুণ জানিয়েছেন, সকালে Class করতে Auto তেই চলে আসেন তাঁরা। হেঁটেই ফেরেন সবাই বিকেলে বাড়ি যাওয়ার সময় । Internet connectivity in Rajamala নেই বললেই চলে। কিছু জায়গায় Internet-র সুবিধা থাকলেও Speed খুবই Weak। প্রতিদিন Internet-র সুবিধা পেতে 6 KM আসতে অনেক সমস্যা হয়। অনেক সময় অনলাইন ক্লাসের মাঝেই বৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। পড়ুয়াদের সবথেকে খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয় ।

Online classes problem in Covid Situation:  

বর্তমান পরিস্থিতি বলছে, Covid Situation এ পড়ুয়াদের সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে Schools, colleges, educational institutions বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যগুলি। সেক্ষেত্রে পঠন-পাঠন অনলাইন ক্লাসেই চলছে । শহরের বুকে Internet Connectivity-র সুবিধা থাকায় সমস্যা হচ্ছে না খুব একটা। তবে Low speed internet & connectivity-র অভাব ভোগাচ্ছে গ্রামের পড়ুয়াদের। অনেক সময় স্কুলে আসতে হচ্ছে তাদের অনলাইন ক্লাস করতে ।

এ ছাড়াও Electricity-র অভাব Internet-র সুবিধা পেতে সমস্যা বাড়াচ্ছে ।

দেশের বহু জায়গায় এখনও Electricity পৌঁছয়নি। তাই সেই জায়গায় ইন্টারনেট না পাওয়াটাই স্বাভাবিক।পড়ুয়াদের শেষে যার ফল ভুগতে হচ্ছে ।

এমনিতেই গত 2 Years ধরে Syllebus শেষ করতে কালঘাম ছুটছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির।

Exam নেওয়ার বিষয়টাও মাথায় রাখতে হচ্ছে School Collage or Board কর্তৃপক্ষকে।

Central Government-র Covid Report বলছে, Covid 2nd Stage মারাত্মক ক্ষতি করেছে দেশের। সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন বহু মানুষ। সেক্ষেত্রে Covid-19 বাবা-মাকে হারিয়ে অনাথ করেছে বহু শিশুকে।

অসুরক্ষিত হয়ে পড়েছে সেইসব অনাথ শিশুদের ভবিষ্যৎ।

‘National Mission of Protection of Child Rights’ (NCPCR)-এর তথ্য বলছে, দেশে এখন এমন অভিভাবকহীন শিশুর সংখ্যা 9,346 জন।

যাদের Education-র জন্য Monthly টাকার ব্যবস্থা করেছে Government।

আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here