International Journal | World ও India Book of Records এ স্বীকৃতি পেল এক বাঙালির আবিস্কৃত মহিলা সুরক্ষাকারী জুতা

International Journal : বর্তমান যুগে অর্থাৎ 2020 সালে দাঁড়িয়েও আমাদের ভারতবর্ষের একটা খুব বড় সমস্যা হচ্ছে নারী সুরক্ষা। বর্তমান ভারতবর্ষে দিন দিন নারীদের ধর্ষণের হার বেড়ে চলেছে ,অনেক কিছু করার পর আজও আমরা নারীদের ধর্ষণ কে আটকাতে পারছিনা।

World ও India Book of Records এ স্বীকৃতি পেল এক বাঙালির আবিস্কৃত মহিলা সুরক্ষাকারী জুতা

নারীদের ধর্ষণ কে আটকানোর জন্য অনেক বিজ্ঞানী অনেক কষ্ট করে অনেক কিছু Software বা মেশিন আবিষ্কার করেছেন। তারা যেগুলি আবিষ্কার করেছেন বাস্তব ক্ষেত্রে যখন একটা মহিলা এরকম কোন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে পড়েন তখন এই আবিষ্কার গুলি ব্যবহার উপযোগী হয় না বা মহিলাটি ব্যবহার করতে চাইলেও ব্যবহার করতে সক্ষম হয়ে উঠতে পারেন না।

Read More : Innovative women’s safety shoe device by an Individual

কারণ সেই পরিস্থিতিটা এমনই হয়। এইসব সমস্যা কে মাথায় রেখে তিনি এমন একটি মেশিন আবিষ্কার করেছেন |যে মেশিন টি সহজেই ব্যবহারযোগ্য । এই মেশিনটি ব্যবহার করে একজন মহিলা শুধুমাত্র ধর্ষণের হাত থেকে নিজেকে বাঁচতে পারবেন এমনটা নয় সেই সঙ্গে দোষীদের শাস্তি ও দিতে পারবেন ।

International Journal
International Journal

এই মেশিনটি ঘটনাকালে সম্ভাব্য পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে সম্পূর্ণরূপে বিচার বিবেচনা করে বানানো যার ফলে এটি 100% ব্যবহারযোগ্য। এই মেশিনটি বাস্তবে একজন মহিলার যখন কোনো অপ্রীতিকর সমস্যার সম্মুখীন হয়ে পড়েন তখন যেসকল পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হতে পারে সেই সবকিছুকে মাথায় রেখে এই মেশিনটি পরীক্ষণ করা হয়েছে।

পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লকের অন্তর্গত তিলাবনি গ্রামের এক ছেলে সৈয়দ মোশারফ হোসেন (syed mosharaf hossain) | সাল তখন 2018 পূর্ব বর্ধমানের একটি Polytechnic কলেজে তিনি তার Diploma Engineering পড়াকালীন দেখতে পান পুরো ভারতবর্ষে মহিলাদের ধর্ষণ বা যৌন হেনস্থা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে |তাই এই যৌন হেনস্থা বা ধর্ষণকে কি করে কম করা যায় সেটা নিয়ে তিনি গবেষণা করতে শুরু করলেন।

The International Journal & India Book of Records of Recognition of a Bengali Women’s Protective Shoe

তিনি গবেষণার করার পর দেখতে পেলেন, অনেক বিজ্ঞানী অনেক রকম Android Application , Electric Short Circuit , মহিলাদের Tracking Device , Safety Belt ইত্যাদি অনেক কিছুই আবিষ্কার করেছেন | কিন্তু এইসব আবিষ্কার গুলি সেই মুহূর্তে যখন কোন মহিলা বিপদে পড়েন কাযর্কারী হয়ে উঠে না|

কারণ যখন কোন মহিলা এরকম কোন প্রবলেমে আছেন তখন দুষ্কৃতীকারীরা প্রথমেই মহিলাদের হাত ধরে ফেলে বা চোখ বেঁধে ফেলে তাই মহিলারা এসব যন্ত্র ব্যবহার করতে পারেন না। তাই সৈয়দ মোশাররফ হোসেন ভাবতে শুরু করলেন এমন কিছু একটা আবিষ্কার করতে হবে যেটি ব্যবহার ব্যবহার করতে মহিলাদের হাতের দরকার পড়বে না।

তিনি এই ভাবনাটি তার কলেজের দুই শিক্ষক রমাপ্রসাদ চ্যাটার্জী এবং কৃষ্ণেন্দু কর্মকারকে জানান। উনার দুই শিক্ষক এর সাহায্যে তিনি তার উদ্দেশ্য পূরণের দিকে রওনা দিলেন। এবং তার সঙ্গে সঙ্গে তিনি Diploma Engineering Degree অর্জন করতে লাগলেন। কিন্তু কোনো কারণবশত যথেষ্ট চেষ্টা করার পরও তিনি সেরকম কিছু ফল পাচ্ছিলেন না |

তিনি হতাশ হয়ে পড়ছিলেন | কিন্তু চেষ্টা করলে সবই হয়, তিনি কোনদিন চেষ্টা ছাড়েননি। তারপর তিনি নিজের Diploma Engineering Complete করে ভর্তি হন Bandel -র Modern Institute Of Engineering & Technology কলেজ এ (syed mosharaf hossain) |

সেখান থেকে তিনি নিজের B.Tech Degree অর্জন করার সাথে সাথে পাশে পান উনার এক শিক্ষক শুভেন্দু চক্রবর্তী কে | অবশেষে দীর্ঘ দুই বছরের গবেষণার ফল স্বরূপ তৈরি করে ফেললেন এমন একটা জুতা যা বিপদগ্রস্ত মহিলাদের একটি বিরাট অস্ত্র |

কিভাবে কাজ করবে এই সিস্টেম?

মোশারেফের কথায় যখন মহিলা আক্রান্ত হন তখন আক্রমনকারী প্রথমে তার হাত চোখ বেধে দেয় | অথবা মোবাইল বা সাথে থাকা বেগ কেড়ে নেয় কিন্তু পায়ের জুতা অক্ষত থাকে । তাই তিনি এমন একটা টেকনোলজি নিয়ে এলেন যেটি কিনা মহিলাদের পায়ের জুতোর মধ্যে থাকবে। এই জুতা বিপদগ্রস্ত মহিলার থেকে পূর্বে নির্ধারিত পাঁচটি Phone Call & SMS পাঠাবে তার Present Location এর সঙ্গে।

এবং পরবর্তীকালে দুষ্কৃতীরা তার বর্তমান অবস্থান পরিবর্তন করলেও উদ্ধারকারীরা খুব সহজেই তার কাছে পৌঁছে যেতে পারবেন | মোশারফ হোসেন জানান যে তিনি শুধু জুতা এর ওপর ভরসা না করে একটা পেন্ডেন্ট বানান এটি মহিলার গলায় ঝোলানো থাকবে | যদি কোনো কারণবশত জুতা Use না করতে পারে তাহলে গলায় থাকা পেন্ডেন্ট সে কাজটি করবে।

এছাড়াও তিনি এই জুতোর মধ্যে আরো অনেক কিছু বিশেষ সিস্টেম Install করেছেন যেগুলি সাহায্যে একজন বিপদে পরা মহিলা খুব সহজে নিজেকে দুষ্কৃতী থেকে রক্ষা করতে পারবেন | তার আবিষ্কারের সকল নথি International Journal Of Advance in Computer & Electronics Engineering এ প্রকাশিত হয়েছে Volume 6, Issue 1, January 2021 | গতকাল 4th April এটি Website (http://www.ijaceeonline.com) এ প্রকাশিত হয়েছে। তবে যেটুকু জানা গেছে তাতে নিশ্চিত পরবর্তীকালে এই জুতা এবং পেন্ডেন্ট ব্যবহার করলে মহিলারা অনেকটাই সুরক্ষিত থাকবেন।

The International Journal Link:

1 thought on “International Journal | World ও India Book of Records এ স্বীকৃতি পেল এক বাঙালির আবিস্কৃত মহিলা সুরক্ষাকারী জুতা”

Leave a Comment

13 − eight =